• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০১:০৫ পূর্বাহ্ন

বাগেরহাটে দিনমজুরকে বেধেঁ নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, গ্রেফতার ৫


প্রকাশের সময় : মার্চ ১৬, ২০২৩, ১২:১৯ AM / ৫৬
বাগেরহাটে দিনমজুরকে বেধেঁ নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, গ্রেফতার ৫

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট : বাগেরহাটের মোল্লাহাট উপজেলায় শেখ মনিরুজ্জামানকে (৪২) নামে এক দিনমজুরকে চোর সন্দেহে বেঁধে রেখে অমানুষিক নির্যাতনের দুটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ছড়িয়ে পড়ার মঙ্গলবার সকালে পুলিশ এঘটনায় জড়িত ৫জনকে গ্রেফতার করেছে। শনিবার মোল্লাহাট উপজেলার গাংনী ইউনিয়নের ঘোষগাতি বাজারে ওই নির্যতনের নির্যাতনের দুটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পর তা ভাইরাল হয়ে যায়। ছাগলের মালিক মো. জাহিদুল ইসলাম মঙ্গলবার মোল্লাহাট থানায় মনিরুজ্জামানকে নির্যাতনকারী ৮জনের নাম উল্লোখ করে মামলা দায়েরের পর পুলিশ দ্রত অভিযান চালিয়ে এজহারভূক্ত প্রধান অভিযুক্তসহ ৫ আসামীকে গ্রেফতার করেছে।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ্উপজেলার ঘোষগাতি গ্রামের হেকমত শেখের ছেলে শেখ আরিফুল ইসলাম (২৩), আব্দুল হালিম শেখের ছেলে আব্দুল গনি শেখ (৩৫), আহম্মদ শেখের ছেলে আসলাম শেখ (২৭), নগরকান্দি গ্রামের লায়েক শেখের ছেলে আকামে শেখ (২৭) ও খুলনার রূপসা উপজেলার তালিমপুর গ্রামের সিদ্দিক শেখের ছেলে মাহমুদ শেখ (২৮)।
বাগেরহাট জেলা পুলিশের মিডিয়া সেলের প্রধান পুলিশ পরিদর্শক এস এম আশরাফুল আলম জানান, গত শনিবার সকালে মোল্লাহাট উপজেলার মাতারচর এলাকার জনৈক জাহিদ তার অসুস্থ ছাগল নিয়ে চিকিৎসার জন্য গত শনিবার দিনমজুর মনিরুজ্জামানকে সাথে নিয়ে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ে যায়। সেখানে অসুস্থ ছাগলকে চিকিৎসা করিয়ে দুপুরে ভ্যান করে বাড়ি ফেরার পথে ঘোষগাতী বাজারে কয়েকজন তাদের চোর সন্দেহে গতিরোধ করে কোন কিছু না শুনেই ছাগরের মালিক জাহিদকে পিটাকে থাকে। এসময়ে জাহিদ দৌঁড়ে পালিয়ে গেলে লোকজন দিনমজুর শেখ মনিরুজ্জামানকে ধরে দড়ি দিয়ে বেধেঁ অমানুষিক নির্যাতন চালায়। পরে আহত মনিরুজ্জামানকে ছেড়ে দেয়া হলে প্রথমে মোল্লাহাট উপজেলা হাসপাতালে ভর্তির পর চিকিৎসকরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য গোপালগঞ্জ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। মোল্লাহাটের পূর্ব দারিয়ালা গ্রামের ইসলাম শেখের ছেলে গাংনী মাতারচর আশ্রয়ণ প্রকল্পে বসবাসকারী ভূমিহীন দিনমজুর মনিরুজ্জামানকে চোর সন্দেহে দড়ি দিয়ে বেধেঁ নির্যাতনের দুটি ভিডিও রবিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেজবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এঘটনাটি পুলিশের নজরে এলে জড়িতদের সর্ম্পকে খোঁজখবর শুরু করে। এই অবস্থায় ছাগল মালিক মো. জাহিদুল ইসলাম মঙ্গলবার মোল্লাহাট থানায় মনিরুজ্জামানকে নির্যাতনকারী ৮জনের নাম উল্লোখ করে দন্ডবিধির সাতটি ধারায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পরপরই পুলিশ দ্রুত অভিযান চালিয়ে প্রধান অভিযুক্ত শেখ আরিফুল ইসলামসহ এজহারভূক্ত ৫ আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।