• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ১০:১৮ অপরাহ্ন

রেস্তোরাঁ মালিককে চড়কাণ্ডে ক্ষমা চাইলেন সোহম


প্রকাশের সময় : জুন ৯, ২০২৪, ১২:২৫ AM / ৩৭
রেস্তোরাঁ মালিককে চড়কাণ্ডে ক্ষমা চাইলেন সোহম

বিনোদন ডেস্ক : একটি রেস্তোরাঁয় শুটিং করতে গিয়ে মালিকের সঙ্গে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে টালিউড তারকা ও তৃণমূল বিধায়ক সোহম চক্রবর্তীর। এমনকী তুমুল বাগবিতণ্ডার মাঝে তার বিরুদ্ধে ওই রেস্তোরাঁর কর্মীদের কিল, চড়, ঘুসি মারার অভিযোগও পাওয়া গেছে।

সোহমের চড় নিয়ে এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ সরগরম। একজন জনপ্রতিনিধির এমন আচরণ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সোশ্যাল মিডিয়ার মানুষ। সেই ঘটনার ২৪ ঘণ্টা পেরোনোর আগেই এবার ক্ষমা চাইলেন সোহম চক্রবর্তী।

শুক্রবার রাতে কলকাতার নিউটাউনের একটি রেস্তোরাঁয় শুটিং করতে গিয়ে কথার কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন সোহম চক্রবর্তী। রেস্তোরাঁয় মালিকের সঙ্গে তীব্র হাতাহাতি শুরু হয় তার। সোহম নিজে তা স্বীকারও করেছেন। এরপরই শুটিং ছেড়ে বেরিয়ে যান তারকা বিধায়ক। তবে শনিবার দুপুরেই সংশ্লিষ্ট ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়ে নিলেন অভিনেতা।

সোহমের ভাষ্য, ‘আসলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে গালিগালাজ করছিল বলেই আমার মাথাটা গরম হয়ে গিয়েছিল। শুধু তাই নয়, আমাকে আর আমার দেহরক্ষীকেও ভয়ানক কটুক্তি করা হয়। তবে হ্যাঁ, একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমার এই কাজ করাটা ঠিক হয়নি। রাগের বশে ভুল করে ফেলেছি।’

সোহমের দাবি, যে ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ্যে এসেছে, আসল ঘটনার সূত্রপাত তারও ৪৫ মিনিট আগে। সেসব ফুটেজ কেনো বের করা হচ্ছে না? প্রশ্ন অভিনেতার। তবে এ বিষয়টি তিনি প্রশাসনের হাতেই ছেড়ে দিতে চাইছেন, বলে জানালেন।

সাপুরজি আবাসন লাগোয়া একটি রেস্তোরাঁর ভাড়া নিয়ে তার দোতলায় এক সিনেমার শুটিং চলছিল সোহমের। সন্ধ্যার দিকে রেস্তোরাঁ মালিক এসে দেখেন, সামনে একটি সাদা রঙের গাড়ি রাখা। তা নিয়ে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। গাড়িটি ছিল সোহমের। নিরাপত্তারক্ষীরা তা জানানোর পর আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন রেস্তোরাঁ মালিক।

সেসময় রেস্তোরাঁর দোতলায় শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন সোহম। বাইরে চিৎকার শুনে তিনি বাইরে বেরিয়ে আসেন। রেস্তরাঁ মালিকের সঙ্গে কথা কাটাকাটির সময় সোহম নাকি মারধর শুরু করেন! এ ঘটনায় পুলিশও এসে হাজির হয়।

এ প্রসঙ্গে সোহম পুলিশকে বলেন, ‘আগে রেস্তোরাঁর মালিক আমার নিরাপত্তারক্ষীদের উপর চড়াও হয়েছিলেন। সেই বাগবিতণ্ডা থামাতে গেলে তিনি আমাকে এবং আমাদের দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে কটূক্তি করেন। গালিগালাজও করেন। পুলিশকে ডেকে রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।’

তবে পাল্টা রেস্তোরাঁর মালিকের অভিযোগ, ‘বেআইনি পার্কিং নিয়ে সমস্যা শুরু হয়। সোহম রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেন। বাগবিতণ্ডার সময় সোহম রেস্তোরাঁর কর্মচারীদের মারধর করেছেন।’

শুটিংয়ের মাঝে এহেন অশান্তির খবরে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বিধাননগর কমিশনারেটের টেকনো সিটি থানার পুলিশ। তারা অভিযুক্ত মালিককে আটক করেছে। এসবের পর সোহম শুটিং বাতিল করে সেখান থেকে বেরিয়ে যান। তবে চব্বিশ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই ক্ষমা চাইলেন তৃণমূলের তারকা বিধায়ক।